Ticker

6/recent/ticker-posts

Header Ads Widget

Responsive Advertisement

মন্দিরময় খড়্গপুর


 

 মন্দিরময় খড়্গপুর


Fri, Apr 1, 9:54 PM (10 hours ago)



কলকতা থেকে মাত্র ১১৬ কিলোমিটার দূরে খড়্গপুর। খড়্গপুরের আশে পাশে ছড়িয়ে ছিটিয়ে আছে প্রচুর মন্দির ও মসজিদ। যা এখনো মানুষকে আপ্লুত করে রাখে । খড়্গপুর স্টেশন থেকে জঙ্গলের দূরত্ব মাত্র পাঁচ কিলোমিটার। 
জঙ্গল বা মালঞ্চে মন্দিরগূলির মধ‍্যে সবচেয়ে পুরাতন মন্দির হচ্ছে রক্ষা কালিমন্দির। সুক্ষ্ম সুক্ষ্ম কারুকাজে সমৃদ্ধ এই মন্দির। মন্দিরের গাত্রে রামায়ণে কাহিনী নিয়ে অপূর্ব ভাস্কর্য‍্য দেখা যাবে। রাম-লক্ষ্মণ সুগ্রীব  বালী  সীতা ইত‍্যাদির ছবি গাত্রচিত্রে দেখা যাবে। সবই টেরাকোটার কাজ। সামনে ঠেরাকোটার কাজ দিয়ে মন্দিরটি সংস্কার করা হয়েছে। ফলে টেরাকোটার স্বভাবিক ভার্স্কয‍্য শৈল‍্য হারিয়েছে। দেবী এখানে নিত্ত পূজিত হয়। মন্দিরটি প্রতিষ্ঠা হয় ১৬৩৪ শকাব্দে ইংরেজি ১৭১২ খ্রিষ্টাব্দে। এটি নির্মাণ করেন গোবিন্দরাম রায়। কালী মন্দিরের অনতি দূরে আছে শিব মন্দির। এটিও প্রাচীন। তবে বর্তমানে সংস্কারের ফলে কারুকাজ আর পুরাতনী কিছু নেই। পাশে নির্মাণ হয়েছে সিদ্ধেশ্বরী মায়ের মন্দির। বয়সে নবীণ কি আয়োতনে বিশাল। এখানে নিত‍্য পূজোপাঠ হয়। মন্দিরটি সযত্নে রক্ষিত। একটু পরেই আছে একটি শিব মন্দির নাম ঝড়েশ্বর শিব মন্দির। 
মন্দিরের সামনের মাঠে শিবচতুর্দশী ও চৈত্র সংক্রান্তিতে শিব গাজনের মেলা বসে। মন্দিরটি আকারে ছোট কিন্তু প্রাচীন এই মন্দির। প্রিতিদিন পূজা  পাঠ হয়। খড়্গপুর স্টেশনের পাশেই দেখা যাবে বালাজি মন্দির। মন্দিরটি নির্মাণ হয়েছে পুরোপুরি দক্ষিণ ভারতীয় রীতিতে। ফাল্গুন মাস ভীম চতুর্দশীতে এবং চৈত্র সংক্রান্তিতে ধূমধাম আকারে মেলা হয়। খড়্গশ্বরী দেবীর কিছু দূরে হিড়িম্বাশ্বরীর পূজা হয়। কথিত আছে মহাভারতে যে হিড়িম্বার সাথ ভীমের তুমুল যুদ্ধ হয় এই যুদ্ধ হিড়িম্বা বধ হয়। সেই থেকে এই অঞ্চলের নাম হয় হিড়িম্বাডাঙ্গা।
খগেশ্বর মহাদেব মন্দিরর পাশেই আছে পীর লোহানী সাহেবের মাজার। ফকিরের আসল নাম সৈয়দ শা মিরুখান লোহানী মতান্তরে নাম আমির খাঁ।  হিন্দু-মুসলমান সবাই লোহানী সাহেবকে ভক্তি শ্রদ্ধা করেন এখনো। 

কী ভাবে যাওয়া যায় ঃ- হাওড়া খড়্গপুর লোকালে খড়্গপুর  স্টেশান। এখান থেকে বাসে মালঞ্চ। 

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্যসমূহ